মেনু নির্বাচন করুন
পাতা

কম্পিউটার সংক্রান্ত যাবতীয় তথ্য

 

১।  প্রিন্ট বাতিল করতে...

প্রিন্ট কমান্ড দেওয়া পর তা বাতিল করা অনেক ঝামেলার ব্যাপার। অনেক ক্ষেত্রে কম্পিউটার আবার চালানো ছাড়া আর কোনো উপায় থাকে না। Stalled Printer Repair নামের একটি ছোট সফটওয়্যার দিয়ে এই কাজটি করা খুবই সহজ।
http://goo.gl/kuDl8—এই ঠিকানা থেকে সফটওয়্যার নামিয়ে রান করালেই হবে। বহনযোগ্য বলে ইনস্টল করতে হয় না। রান করার পর রিফ্রেশ দিলে সব কটি কমান্ড দেখাবে। সেখান থেকে Purge Print Jobs-এ ক্লিক করলে সব কমান্ড বাতিল হয়ে যাবে।

 

 

 

 

২। ছবির মধ্যে ফাইল লুকিয়ে রাখুন

 

গোপনীয়তার জন্য প্রয়োজনীয় বিভিন্ন ফাইল লুকানোর প্রয়োজন হতে পারে। চাইলেই যেকোনো ছবির মধ্যে ফাইলটি লুকিয়ে রাখা যায়। এ ক্ষেত্রে যে ফাইলটি লুকাবেন সেটি, যেকোনো ছবি এবং উইনরার সফটওয়্যার প্রয়োজন পড়বে। উইনরার সফটওয়্যারটি http://goo.gl/jDxqw ঠিকানা থেকে নামিয়ে নিয়ে ইনস্টল করে নিন। ভিডিও ফাইল হলে abc.mp4 এবং photo.jpg ফাইল দুটিকে কপি করে D: ড্রাইভে রেখে দিন। এবার যদি abc.mp4 ফাইলটি ছবির মধ্যে লুকিয়ে রাখতে মাউসে রাইট ক্লিক করে add to archive নির্বাচন করুন।
নতুন উইন্ডোজ আসলে archive name এ abc.mp4.rar লিখে OK করুন। এবার Run এ যেয়ে cmd লিখে এন্টার করুন। কমান্ড প্রমট ওপেন হলে D: লিখে এন্টার দিন। এখন copy /b photo.jpg+ abc.mp4.rar xyz.jpg লিখে enter দিন। দেখবেন D: ড্রাইভে xyz.jpg নামে নতুন ফাইল তৈরি হবে। এই ফাইলের মধ্যে abc.mp৪ নামের ভিডিও ফাইলটি লুকানো আছে। মূল ফাইলটি দেখতে হলে রাইট বাটন ক্লিক করে open with থেকে উইনরার সফটওয়্যার নির্বাচন করে খুলতে হবে।
 

 

৩। বন্ধ করুন পেনড্রাইব এর অটোপ্লে

নিচের ধাপগুলো অনুসরন করুন........................

Start> Run> gpedit.msc লিখুন> Ok> Computer configuration> Administrative templates> All settings> Turn off Auto play............

এরপর নতুন উইন্ডো আসলে Auto play থেকে Enable সিলেক্ট করে নিচের Turn off auto play on থেকে  CD-ROM and removable media drives সিলেক্ট করে ok চেপে বেরিয়ে আসুন। এখন থেকে আপনার কম্পিউটার  এ পেন ড্রাইভ অটো প্লে  হবেনা। ভাইরাস থেকে নিরাপদে থাকুন।

 

 

৪। অপারেটিং সিস্টেম ইনস্টল করুন pendrive থেকে।


এই বিষয়ের ওপর কন টিউন করা হয়েছে কি না জানিনা। তবে নতুনদের কাজে লাগবে।ভুল হলে ক্ষমা করবেন, সংশধন করে দেবেন। যারা ১০.১ ইঞ্চি বা তারচেয়ে ছোট মনিটরের ল্যাপটপ use করেন ,তাদের ল্যাপটপে সাধারণত সিডি বা ডিভিডি-রম ড্রাইভ থাকে না। এখন তারা অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করবেন কিভাবে? হ্যাঁ, তারা পেনড্রাইভ দিয়েই এটা করতে পারবেন। দেখে নিন TRICK টা

প্রথমে আপনার পেনড্রাইভটা কম্পিউটারে যুক্ত করে উইন্ডোজের স্টার্ট মেনু থেকে রান কমান্ডে গিয়ে cmd লিখে ওকে করুন। নতুন উইন্ডোতে লিখুন DISKPART । তাহলে নতুন আরেকটা উইন্ডো খুলবে। সেখানে LIST DISK লিখে এনটার করুন। এবার প্রথমে SELECT DISK 1 লিখুন। তারপর একে একে লিখুন

1
2
3
4
5
6
7
8
9
10
11
12
13
CLEAN
 
CREATE PARTITION PRIMARY
 
SELECT PARTITION 1
 
ACTIVE
 
FORMAT FS=NTFS
 
ASSIGN
 
EXIT

এবার উইন্ডো মিনিমাইজ করে রাখুন। তারপর উইন্ডোজ সেভেন ডিভিডি-রম ড্রাইভ -এ ঢোকেন । ধরে নিই আপনার ডিভিডি রম ড্রাইভ ও পেনড্রাইভের ড্রাইভ লেটার হল যথাক্রমে P ও Q।

কমান্ড উইন্ডোতে ফিরে গিয়ে P: CD BOOT Ges CD BOOT লিখুন।

এবার BOOTSECT.exe /NT60 Q: লিখে এনটার করুন। এবার ডিভিডির সব ফাইল পেনড্রাইভে কপি করে নিন, এতে আপনার পেনড্রাইভ

বুটেবল হয়ে যাবে এবং এটা দিয়েই আপনি সরাসরি অপারেটিং সিস্টেম ইন্সটল করতে পারবেন।

বিঃদ্রঃ এই পদ্ধতি XP র জন্য নয়। শুধু 7, 8 & vista র জন্য।

Thanks to all....

 

 

 


৫। হার্ডডিস্ক সচল রাখুন সব সময়.........

কম্পিউটারে যা কিছু করছেন তা সংরক্ষিত হচ্ছে হার্ডডিস্ক ড্রাইভে। সব তথ্য, ছবি, ফাইল ইত্যাদি জমা থাকে এতে। এ ছাড়া নানা সময়ে প্রয়োজনে তথ্য বা ডেটা আদান-প্রদানও হয়। অনেক সময় নিয়মিত ডেটা আদান-প্রদান করার ফলে হার্ডডিস্কের ভেতরের সেলে নানা ধরনের সমস্যা সৃষ্টি হতে থাকে। আর একসময় হার্ডডিস্কটি নষ্ট হয়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। এ জন্য হার্ডডিস্ককে মাঝেমধ্যে একটু রিফ্রেশ করে নেওয়ার প্রয়োজন হয়।

এ জন্য প্রথমে আপনার কম্পিউটারের Start Manu থেকে All Program-এ যান। এখান থেকে Accessories-এ যান। এর পর Accessories থেকে System Tools নির্বাচন করে Disk Defragmenter-এ ক্লিক করুন। এরপর যে পেজটি আসবে, সেখানে ওপরের দিকে আপনার কম্পিউটারের ড্রাইভগুলো দেখতে পাবেন এবং নিচের দিকে Analyze disk ও Defragment disk নামের দুটি বোতাম পাওয়া যাবে। এবার যে ড্রাইভটি রিফ্রেশ করতে চান, সেটি নির্বাচন করে Defragment disk-এ ক্লিক করুন। কাজ শেষ হলে Close-এ ক্লিক করে বেরিয়ে আসুন। এভাবে এক এক করে সব ড্রাইভ রিফ্রেশ করে নিন এবং আপনার হার্ডডিস্ক ভালো রাখুন। প্রতি মাসে অন্তত একবার হার্ডডিস্ক রিফ্রেশ করুন।

 

 

৬।  ফায়ারফক্সের শর্টকাট

ওয়েবসাইট দেখার সফটওয়্যার মজিলা ফায়ারফক্সের কিছু শর্টকাট কি নিচে দেওয়া হলো—
Up এবং Down Arrow: ওপরে এবং নিচে ওঠানামা করার জন্য।
Home এবং End : ওয়েব পেজের একেবারে ওপরে এবং একেবারে নিচে যাওয়ার জন্য।
Spacebar এবং Shift + Spacebar পুরো পর্দার জায়গা নিচে নেমে যাবে এবং ওপরে উঠে যাবে।
Alt + Home প্রথম পৃষ্ঠা খুলবে।
Ctrl + + লেখা বড় হবে।
Ctrl + - লেখা ছোট হবে।
Ctrl + H ওয়েবসাইট দেখার ইতিহাস (হিস্ট্রি) দেখতে।
Ctrl + T নতুন ট্যাব।
Ctrl +W বর্তমান ট্যাব বন্ধ করতে।
Ctrl + Tab পরবর্তী ট্যাবে যেতে।
Ctrl + Shift + Tab আগের ট্যাবে ফিরে যেতে।
Ctrl + 1 সংখ্যা নির্বাচন করে সরাসরি নির্দিষ্ট সংখ্যার ট্যাবে যাওয়া যাবে।
Ctrl + D বর্তমান পাতাটি বুকমার্ক হিসেবে রাখতে।
Ctrl + L ওয়েব ঠিকানা লিখতে।
Ctrl + K কোনো তথ্য খোঁজার ঘর (বক্স) খুলবে।
F5 বর্তমান পাতাটি আবার আসবে।

ফায়ারফক্সের শর্টকাট

| তারিখ: ০৩-০৩-২০১৩

ওয়েবসাইট দেখার সফটওয়্যার মজিলা ফায়ারফক্সের কিছু শর্টকাট কি নিচে দেওয়া হলো—
Up এবং Down Arrow: ওপরে এবং নিচে ওঠানামা করার জন্য।
Home এবং End : ওয়েব পেজের একেবারে ওপরে এবং একেবারে নিচে যাওয়ার জন্য।
Spacebar এবং Shift + Spacebar পুরো পর্দার জায়গা নিচে নেমে যাবে এবং ওপরে উঠে যাবে।
Alt + Home প্রথম পৃষ্ঠা খুলবে।
Ctrl + + লেখা বড় হবে।
Ctrl + - লেখা ছোট হবে।
Ctrl + H ওয়েবসাইট দেখার ইতিহাস (হিস্ট্রি) দেখতে।
Ctrl + T নতুন ট্যাব।
Ctrl +W বর্তমান ট্যাব বন্ধ করতে।
Ctrl + Tab পরবর্তী ট্যাবে যেতে।
Ctrl + Shift + Tab আগের ট্যাবে ফিরে যেতে।
Ctrl + 1 সংখ্যা নির্বাচন করে সরাসরি নির্দিষ্ট সংখ্যার ট্যাবে যাওয়া যাবে।
Ctrl + D বর্তমান পাতাটি বুকমার্ক হিসেবে রাখতে।
Ctrl + L ওয়েব ঠিকানা লিখতে।
Ctrl + K কোনো তথ্য খোঁজার ঘর (বক্স) খুলবে।
F5 বর্তমান পাতাটি আবার আসবে।

- See more at: http://www.prothom-alo.com/detail/date/2013-03-03/news/333375#sthash.czlLKJ64.dpuf

 

 

 

 

 

 

 

 

 

 

ফায়ারফক্সের শর্টকাট

| তারিখ: ০৩-০৩-২০১৩

ওয়েবসাইট দেখার সফটওয়্যার মজিলা ফায়ারফক্সের কিছু শর্টকাট কি নিচে দেওয়া হলো—
Up এবং Down Arrow: ওপরে এবং নিচে ওঠানামা করার জন্য।
Home এবং End : ওয়েব পেজের একেবারে ওপরে এবং একেবারে নিচে যাওয়ার জন্য।
Spacebar এবং Shift + Spacebar পুরো পর্দার জায়গা নিচে নেমে যাবে এবং ওপরে উঠে যাবে।
Alt + Home প্রথম পৃষ্ঠা খুলবে।
Ctrl + + লেখা বড় হবে।
Ctrl + - লেখা ছোট হবে।
Ctrl + H ওয়েবসাইট দেখার ইতিহাস (হিস্ট্রি) দেখতে।
Ctrl + T নতুন ট্যাব।
Ctrl +W বর্তমান ট্যাব বন্ধ করতে।
Ctrl + Tab পরবর্তী ট্যাবে যেতে।
Ctrl + Shift + Tab আগের ট্যাবে ফিরে যেতে।
Ctrl + 1 সংখ্যা নির্বাচন করে সরাসরি নির্দিষ্ট সংখ্যার ট্যাবে যাওয়া যাবে।
Ctrl + D বর্তমান পাতাটি বুকমার্ক হিসেবে রাখতে।
Ctrl + L ওয়েব ঠিকানা লিখতে।
Ctrl + K কোনো তথ্য খোঁজার ঘর (বক্স) খুলবে।
F5 বর্তমান পাতাটি আবার আসবে।

- See more at: http://www.prothom-alo.com/detail/date/2013-03-03/news/333375#sthash.czlLKJ64.dpuf


Share with :
Facebook Twitter